ভৌত পরিবর্তন (Physical Change) কাকে বলে?

ভৌত পরিবর্তন:

যে পরিবর্তনে পদার্থের মূল গঠনের কোন পরিবর্তন ঘটে না অর্থাৎ পদার্থের অণুর গঠনে কোন পরিবর্তন হয় না, শুধু ভৌত অবস্থার রূপান্তর ঘটে, সেই পরিবর্তনকে ভৌত পরিবর্তন বলে। এই পরিবর্তন অস্থায়ী।

ভৌত পরিবর্তনের বৈশিষ্ট্য :-

(i) ভৌত পরিবর্তনে পদার্থের বাহ্যিক অবস্থার পরিবর্তন ঘটে মাত্র। পদার্থের অণুর গঠনের কোন পরিবর্তন হয় না বা অন্য ধর্মবিশিষ্ট নতুন পদার্থ উৎপন্ন হয় না। উদাহরণ : বরফ, জল এবং স্টীম প্রত্যেকের

অণুর গঠন একই—ওরা মূলত একই পদার্থ।

(ii) ভৌত পরিবর্তন অস্থায়ী। পরিবর্তনের মূল কারণকে সরিয়ে নিলে পরিবর্তিত পদার্থকে আবার মূল পদার্থে সহজেই ফিরিয়ে আনা যায়। প্ল্যাটিনাম তারকে উত্তপ্ত করলে আলো বিকীর্ণ করে, আবার ঠাণ্ডা করলে আলো বিকীর্ণ করে না, তারটি অবিকৃত থাকে।

(iii) ভৌত পরিবর্তনের ফলে উৎপন্ন পদার্থের এবং মূল পদার্থের মধ্যে ওজনের কোন পার্থক্য হয় না।

(iv) ভৌত পরিবর্তনের সময় সাধারণত পদার্থের মধ্যে তাপের হ্রাস বা বৃদ্ধি হতে পারে আবার নাও হতে পারে।

জলের সঙ্গে চিনি মেশালে উষ্ণতার বিশেষ কোন পরিবর্তন হয় না—জল এবং চিনি অবিকৃত থাকে। জল ও গাঢ় H2SO4 মেশালে প্রচুর তাপ উৎপন্ন হয়। আবার জল এবং NHCI মেশালে তাপ শোষিত হয়ে দ্রবণটি ঠাণ্ডা হয়ে যায়।

(v) ভৌত পরিবর্তনে অনুঘটক বা অন্য কোন বস্তুর প্রভাবের দরকার হয় না।

ভৌত পরিবর্তনের উদাহরণ :-

জলের স্ফুটন : প্রমাণ চাপে বিশুদ্ধ জলকে 100°C উষ্ণতায় উত্তপ্ত করলে জল ফুটতে থাকে এবং বাষ্পে পরিণত হয়। 1 গ্রাম জল থেকে 1 গ্রাম বাষ্পই উৎপন্ন হয়। ওজনের কোন পরিবর্তন হয় না। বাষ্পের অণুর গঠন ও জলের অণুর গঠন একই। বাষ্পকে ঠাণ্ডা করলে আবার জলে পরিণত হয়। জলের ভৌত পরিবর্তনে বাষ্প উৎপন্ন হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *