সালোকসংশ্লেষ ও শ্বসনের পার্থক্য

সালোকসংশ্লেষ ও শ্বসনের পার্থক্য

সালোকসংশ্লেষ ও শ্বসনের পার্থক্য নিন্মে বিস্তারিত আলোচনা করা হল –

সালোকসংশ্লেষ শ্বসন
এটি একটি উপচিতি বা গঠনমূলক প্রক্রিয়া । এটি একটি অপচিতি বা ধ্বংসাত্মক প্রক্রিয়া ।
এটি ক্লোরোফিলযুক্ত সবুজ কোষে ঘটে । এটি সব সজীব কোষে ঘটে ।
সালোকসংশ্লেষ আলোকের সাহায্যে ঘটে । শ্বসন একটি আলোক নিরপেক্ষ প্রক্রিয়া ।
সালোকসংশ্লেষে সৌরশক্তি রাসায়নিক শক্তিরূপে গ্লুকোজ অণুতে আবদ্ধ হয় । শ্বসনে গ্লুকোজ অনুর রাসায়নিক শক্তি তাপশক্তি এবং কার্যোপযোগী শক্তি তাপশক্তিতে পরিণত হয় ।
সালোকসংশ্লেষ একটি তাপগ্রাহী প্রক্রিয়া । শ্বসন একটি তাপমোচী প্রক্রিয়া ।
সালোকসংশ্লেষে কার্বন ডাই অক্সাইড বিজড়িত হয়ে গ্লুকোজে পরিণত হয় । শ্বসনে গ্লুকোজ জড়িত হয়ে কার্বন ডাই অক্সাইড ও জলে পরিনত হয় ।
সালোকসংশ্লেষে খাদ্য (প্রধানত গ্লুকোজ) তৈরী হয় । শ্বসনে খাদ্য (গ্লুকোজ) ভেঙে যায় ।
সালোকসংশ্লেষে কার্বন ডাই অক্সাইড ও জল কাঁচামাল হিসাবে ব্যবহৃত হয় । শ্বসনে গ্লুকোজ কাঁচামাল হিসাবে ব্যবহৃত হয় ।
সালোকসংশ্লেষে অক্সিজেন তৈরী হয় । শ্বসনে  কার্বন ডাই অক্সাইড ও জল তৈরী হয় ।
সালোকসংশ্লেষে শুস্ক ওজন বাড়ে । শ্বসনে শুস্ক ওজন কমে যায় ।
সালোকসংশ্লেষে বিক্রিয়াগুলি ক্লোরোপ্লাস্টের মধ্যে ঘটে । শ্বসনের শেষ বিক্রিয়া মাইট্রোকন্ডিয়ার মধ্যে ঘটে ।
রাসায়নিক বিক্রিয়া দুটি অংশে বিভক্ত: আলোক বিক্রিয়া ও অন্ধকার বিক্রিয়া । রাসায়নিক বিক্রিয়া বাড়তি অংশে বিভক্ত : গ্লাইকোলাইসিস, অক্সিডেটিভ, ডিকার্বস্কিলেশন, ক্রেবস চক্র এবং প্রান্তিও শ্বসন ।
সালোকসংশ্লেষ অক্সিজেন নির্ভর নয় । শ্বসন অক্সিজেন নির্ভর এবং অবাত ও সবাত শ্বসনে বিভক্ত ।
সালোকসংশ্লেষ কার্বন ডাই অক্সাইড নির্ভর । শ্বসন কার্বন ডাই অক্সাইড নিরপেক্ষ ।
সালোকসংশ্লেষে ফসফোগ্লিসারিক অ্যাসিড থেকে গ্লুকোজ পর্যন্ত বিক্রিয়া শ্বসনের ওই অংশের বিপরীত । শ্বসনের গ্লুকোজ থেকে ফসফোগ্লিসারিক অ্যাসিড সংশ্লেষ পর্যন্ত বিক্রিয়া সালোকসংশ্লেষের শেষ পর্যায়ের বিক্রিয়ার বিপরীত ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *