পশ্চিমবঙ্গের ব-দ্বীপ অঞ্চলের ভূ-প্রকৃতি ও নদ-নদীর বিবরণ

পশ্চিমবঙ্গের ব-দ্বীপ অঞ্চলের ভূ-প্রকৃতি:

অবস্থান:

ভাগীরথী-হুগলী নদীর পূর্ব হইতে বাংলাদেশ সীমানা পর্যন্ত অংশ পশ্চিমবঙ্গের ব-দ্বীপ সমভূমি অঞ্চল নাম পরিচিত ।
মুর্শিদাবাদ (কান্দি মহকুমা বাদে), নদীয়া,হাওড়া , হুগলী, কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা, এবং বর্ধমান ও মেদিনীপুর জেলার পূর্বাংশ নিয়ে এই সমভূমি গঠিত ।

ব-দ্বীপ অঞ্চলের ভূ-প্রকৃতি:

১) গঙ্গা, ময়ূরাক্ষী, অজয়, দামোদর, দ্বারকেশ্বর, রূপনারায়ণ, কাঁসাই, জলঙ্গী, ইছামতি, চূর্ণী প্রভৃতি নদীর পলি সঞ্চয়ের ফলে এই বদ্বীপ অঞ্চলের সৃষ্টি হয়েছে ।
২) এই সমভূমি অত্যন্ত সমতল ।
৩) ব-দীপ গঠনের বিভিন্ন পর্যায় অনুযায়ী এই অঞ্চলকে বিভিন্ন ভাগে ভাগ করা যায় । যেমন –

ক) মৃতপ্রায় ব-দ্বীপ সমভূমি – নদীয়া ও মুর্শিদাবাদ (কান্দি মহকুমা বাদে) জেলা এই সমভূমির অন্তর্গত । এই অঞ্চলের জলঙ্গী, ইছামতি, চূর্ণী, ভৈরব প্রভৃতি নদী গঙ্গা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে মজে যাওয়ায় ব-দ্বীপ গঠনের কাজ শেষ হয়ে গেছে । এই অঞ্চলকে বাগড়ি অঞ্চল বলা হয় ।
খ) পরিনত ব-দ্বীপ সমভূমি – বর্ধমান, হুগলী, হাওড়া, কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা ও মেদিনীপুরের অংশবিশেষ নিয়ে পরিনত ব-দ্বীপ সমভূমি গঠিত । এই অঞ্চলের ব-দ্বীপ গঠনের কাজ এখনো কিছু কিছু চলছে ।
গ) সক্রিয় ব-দ্বীপ সমভূমি – দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার দক্ষিণ পূর্বাংশ, উত্তর ২৪ পরগনা জেলার দক্ষিণ অংশে প্রচুর পলি সঞ্চয় করে ব-দ্বীপ গঠনের কাজ এখনো সক্রিয় ভাবে চলছে । এই অংশকে সক্রিয় ব-দ্বীপ সমভূমি অঞ্চল বলা হয় ।

delta region

[ বর্তমানে সুন্দরবনের দক্ষিণে ‘পূর্বাশা বা নিউমুর দীপ’ ইছামতি ও রায়মঙ্গল নদীর মোহনায় জেগে উঠেছে । ]

গঙ্গার ব-দ্বীপ অঞ্চলে অনেক বিল, জলাশয় এবং অশ্বক্ষুরাকৃতি হ্রদ দেখা যায় ।

ব-দ্বীপ অঞ্চলের নদ-নদী:

১) গঙ্গার খুব সামান্য অংশ এই অঞ্চলের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে । মুর্শিদাবাদের ধুলিয়ানের নিকট গঙ্গা ২ভাগ হয়ে একটি শাখা পদ্মা নাম বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে এবং অন্য শাখাটি ভাগীরথী -হুগলী নামে দক্ষিণে প্রবাহিত হয়ে বঙ্গোপসাগরে প্রবেশ করেছে ।

২) ভাগীরথী-হুগলীর ডান তীরের উপনদী গুলো হল
— বাঁশলই
— ব্রাক্ষণী
— ময়ূরাক্ষী
— অজয়
— দামোদর
— দ্বারকেশ্বর
— রূপনারায়ণ
— কাঁসাই

৩) ভাগীরথী-হুগলীর বাম তীরের উপনদী গুলো হল
— জলঙ্গী
— মাথাভাঙ্গা
— চূর্ণী
মূল নদী থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় এই নদীগুলি প্রায় মজে গেছে ।

৪) পিয়ালী, মাতলা, বিদ্যাধরী প্রভৃতি নাদির কিছু অংশ এই অঞ্চলের অন্তর্গত । ব্যাপক পলি সঞ্চয়ের ফলে অধিকাংশ নদীই মৃত প্রায় ।


পশ্চিমবঙ্গের ব-দ্বীপ অঞ্চল সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশ্ন-উত্তর

Q) বাগড়ি অঞ্চল কাকে বলে ? কোথায় দেখা যায় ?

Q) পৃথিবীর বৃহত্তম ব-দ্বীপ অঞ্চল কোনটি?


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *